মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

এক নজরে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা

এক নজরে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা

শ্রীমঙ্গল পৌরসভার নাম করন সম্বন্ধে বিভিন্ন মত ও জনশ্রুতি বিরাজমান যেমন বাবু প্রকৃত রঞ্জন দত্ত, এডভোকেট হাই কোর্ট ডিভিশন সিলেট বিরচিত ‘সাতগাঁও এর ইতিহাস’ নিবন্ধনে বিভিন্ন লেখকের বক্তব্য ও সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বর্ণনা করেছেন যে, সাতগাঁও এর পাহাড়ে অধিষ্ঠিত শ্রীমঙ্গল চন্ডি মন্দিরকে কেন্দ্র করে মঙ্গল চন্ডির হাটের প্রতিষ্ঠা এবং কালের ব্যাপ্তিতে সেই মঙ্গল চন্ডির হাটই শ্রীমঙ্গল বাজারে রূপান্তরিত। এখানে উল্লেখ যোগ্য যে, শ্রীমঙ্গল চন্ডির মন্দিরের বিলুপ্ত প্রায় ধ্বংসাবশেষ বর্তমান শ্রীমঙ্গল পৌরসভা হতে কয়েক ক্রোশ উত্তর পশ্চিমে অবস্থিত। দ্বিতীয়ত: জনশ্রুতি শ্রীদাস ও মঙ্গল দাস নামীয় প্রতাবশালী  বিত্তবান দুই ভাইয়ের নামানুযায়ী শ্রীমঙ্গল নামকরণ করা হয়েছে। ১৯৩৫ সালের ১ লা অক্টোবর, ১৯২৩ এর আসাম মিউনিসিপ্যাল এ্যাক্ট এর বিধান মূলে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার আত্নপ্রকাশ। মৌলভীবাজার জেলার রূপসপুর ও সুইনগড় মৌজার সমন্বয়ে ২.৫৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর পৌরসভা শ্রেনী বিন্যাস করনে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা ‘গ’ শ্রেনীর পৌরসভায় রূপান্তর হয়। পরবর্তীতে ১ লা জুলাই ১৯৯৪ তে ‘খ’ শ্রেনীতে এবং ৪ঠা ফেব্রুয়ারী ২০০২ এ ‘ক’ শ্রেনীতে উন্নীত হয়। শ্রীমঙ্গল পৌর এলাকার উত্তরে শ্রীমঙ্গল ইউনিয়ন, দক্ষিনে আশিদ্রোন ইউনিয়ন, পূর্বে কালীঘাট ইউনিয়ন এবং শ্রীমঙ্গল ইউনিয়ন ইউনিয়ন অবস্থিত। শ্রীমঙ্গল পৌর এলাকার ৭ ও ৮ নং ওয়ার্ডের মধ্যদিয়ে ঢাকা - সিলেট মহাসড়ক অতিক্রম করেছে এবং ২ ও ৬ নং ওয়ার্ডের মধ্যদিয়ে ঢাকা - সিলেট রেল লাইন। শ্রীমঙ্গল পৌর এলাকায় কোন নদী নেই তবে চা বাগান দ্বারা আচ্ছাদিত। বাংলাদেশের চা শিল্পের জন্য শ্রীমঙ্গল বিখ্যাত। পৌর এলাকার বাহিরে মাধবকুন্ড ঝর্ণা,লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, চা শিল্পের একাধিক কারখানা অবস্থিত। সৌন্দর্য দ্বারা আচ্ছাদিত বলে শ্রীমঙ্গলকে বাংলাদেশে অন্যতম পর্যটন নগরী হিসাবে গণ্য করা হয়। পাহাড় দ্বারা ঘেরার কারণে অতিবৃষ্টি, প্রচন্ডশীত, প্রচন্ড উষ্ণতাও পরিলক্ষিত হয়।প্রাকৃতিক দুর্যোগ খুব একটা পরিলক্ষিত হয় না ।

 

প্রতিষ্ঠা কাল:১৯৩৫ সলের ১লা অক্টোবর, ১৯৩২ এর আসাম মিউনিসিপ্যাল এ্যাক্ট এর বিধান মুলে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার আত্নপ্রকাশ করে।

পার্ক: ১টি (শিশু পার্ক)

এলাকা:      মৌলভীবাজার জেলার রূপসপুর ও সুইনগড় মৌজার সমন্বয়ে ২.৫৮ বর্গ কিমি।

পৌর পাঠাগার: ১টি

ধরন:‘ক’ শ্রেণী

মসজিদ:১২টি

জনসংখ্যা:  প্রায় ৪৫০০০

মন্দির:৬টি

রিবারের সংখ্যা: প্রায় ৮০০০ 

গির্জা:১টি

ওয়ার্ডের সংখ্যা:৯ টি

পৌর কবর স্থান:৩টি

ওয়ার্ড কমিশনার সংখ্যা:৯ জন

পৌর শ্মশান ঘাট:১টি

নারী ওয়ার্ড কমিশনার সংখ্যা: ৩ জন

পৌর মার্কেট:১টি

মোট স্টাফ সংখ্যা:৩৫ জন

পৌর বাজার:২টি

(১টি গরুরবাজার সহ)

মোট সড়ক:৩১ কি. মি (পাকা ২১ কি.মি,আধা পাকা ০৩ কি.মি ও কাঁচা ০৭ কি.মি)

পানি সরবরাহ:দৈনিক ১৩ লক্ষ ১৯ হাজার ৪৬২ লি:

ড্রেন:৩১ কি. মি (পাকা৩০কি.মি ও কাঁচা ১  কি.মি)

পানির পাইপ লাইন:১৪ কি.মি

ডাষ্টবিন: ৪১টি

গভীর নলকুপ:২টি

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান: ১২টি (প্রাথমিক বিদ্যালয়-১টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয়-৪টি, সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়-১টি, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-৪টি এবং মাদ্রসা-২টি)

সরকারি হাইড্রেন্ট:৪৫ টি

খেলার মাঠ: ২টি

লাইসেন্স:১০০০টি(রিক্সা ও ভ্যান)

শহীদ মিনার: ১টি

ট্রেড লাইসেন্স:১৮১৩ টি

 

 

ছবি